মৈত্রী এক্সপ্রেস: বাংলাদেশে যাওয়ার ট্রেন

0
1192
Bengali train Blog

14 এপ্রিল 2008 তারিখে চালু হওয়া মৈত্রী এক্সপ্রেস ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্কের থেকে আরো কিছু বেশী সম্পর্ক স্থাপন করে। অনেক ভারতীয়ের বাংলাদেশে তাদের পূর্বপুরুষের বাড়ি আছে এবং অনেকে এখনও বাংলাদেশে প্রায়ই এই নস্টালজিক যাত্রা করে থাকেন। তাই এই মৈত্রী এক্সপ্রেস শুধু একটি ট্রেন ছাড়াও আরোও অনেক কিছু। এটি একটি মাধ্যম যা পরিবারের সদস্যদের, বন্ধুদের এবং পরিচিতদের সাথে সংযোগ স্থাপন করে। শুধু এই ট্রেন এর অন্তিম গন্তব্য পরিদর্শন করুন, এবং আপনি মানুষের মধ্যেকার এই আত্মীয়তাকে অনুভব করতে পারবেন। যাইহোক, মৈত্রী এক্সপ্রেস এর সাহায্যে এই সীমান্ত অতিক্রমের বিদেশ যাত্রায় আপনাকে নীচের লিখিত তথ্যগুলো মনে রাখতে হবে।

Maitree-Express info

মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সুচি

রবিবার এবং শুক্রবার

13110 সোমবার এবং বুধবার

ভারত থেকে (কলকাতা থেকে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট)

13108 শনিবার এবং সোমবার

13109 মঙ্গলবার এবং শুক্রবার

অন্য বিষয়গুলো

কলকাতা থেকে প্রস্থান সময়: সকাল 7:10 (সব দিন)

ট্রেন ছাড়ার সম্ভাব্য প্ল্যাটফর্ম: 1

টিকিট বুকিংয়ের পদ্ধতি

Bengali travel blog

অগ্রিম টিকিট বুকিং: কিছু নির্দিষ্ট ব্যাকগ্রাউন্ড পরীক্ষার কারণে এবং ট্রেনের আসনগুলির জন্য ভীড় এড়ানোর উদ্দেশ্যে, ট্রেনের সমস্ত টিকিট যাত্রার তারিখের এক মাস আগে বুকিং করা দরকার।

রিজার্ভেশন ফরম: 5:30 PM (সন্ধ্যা) থেকে কলকাতা (চিতপুর) স্টেশনের কাউন্টার # 4 এ প্রথমে আসলে প্রথমে পাবেন ভিত্তিতে রিজার্ভেশন ফরম বিতরণ করা হয়।

প্রয়োজনীয় নথি : ট্রেনের টিকিট বুকিংএর জন্য, যাত্রীকে অবশ্যই বৈধ পাসপোর্ট এবং ভিসা নিয়ে আসতে হবে। পাসপোর্টে ভিসা স্ট্যাম্পিং না থাকলে, যাত্রীকে টিকিট দেওয়া হবে না।

বুকিং এর দিন এবং সময়: মৈত্রী এক্সপ্রেস জন্য টিকিট বুধবার, শুক্রবার, শনিবার এবং রবিবার কলকাতায় (চিতপুর) রেল স্টেশন প্রধান রিজার্ভেশন অফিস, কাউন্টার # 4 6-10 PM এ বুক করা যেতে পারে।

বিভিন্ন শ্রেণীর জন্য টিকিট ভাড়া: 1400 টাকা এসি ফার্স্ট ক্লাস, 845 টাকা এসি চেয়ার কার, 540 টাকা দ্বিতীয় শ্রেণীর চেয়ার কার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here