Insights into simplifying train travel

কলকাতায় ব্রিটিশদের রেখে দেওয়া স্মৃতি

ব্রিটিশেরা আমাদের কলকাতায় অনেক ছাপ রেখে গেছে। ব্রিটিশ শাসনের সময়ে কলকাতা ছিল ভারতের রাজধানী আর আজও এখানে ব্রিটিশদের রেখে যাওয়া শিল্প, স্থাপত্যের নির্দশন চোখে পড়বে। আসুন ব্রিটিশরা কী রেখে গেছে তাতে একনজরে দেখে নেওয়া যাক।

Howrah Bridge

হাওড়া ব্রিজ: এটি এক অত্যতম বিরল ব্রিজ যেখানে নাট বোল্টের কোনও ব্যবহার করা হয়নি। তার বদলে পুরো কাঠামোটিকে উল্টো করে বানানো হয়েছে। 100,000টিরও বেশি গাড়ি এই ব্রিজের উপর দিয়ে যায় আর তাই এই ব্রিজ বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত ব্রিজ। ব্রিজের কিছু ছবি নিজের ক্যামেরায় বন্দি করে রাখতে চাইলে আহিরীটোলা ঘাট থেকে ফেরিতে বসুন। মাত্রা 20 টাকাতেই আপনি ফেরি ভাড়া করতে পারবেন।
নিকটবর্তী রেলওয়ে স্টেশন: হাওড়া রেলওয়ে স্টেশন (350 মি দূরে)

New Market

হগ মার্কেট অথবা নিউ মার্কেট: স্যার স্টুয়ার্ট হগ 1903 সালে এই কমপ্লেক্স বানান এবং তখন এর নাম ছিল সাহেবের বাজার। এখানে পারফিউম, জুতো, শাকসবজি এবং ফল কিনতে পাওয়া যেতো। বাজারের এক দিকে কশাইখানা ছিল।
নিটকবর্তী মেট্রো স্টেশন: এসপ্লানেড (300 মি দূরে)

St Paul's Cathedral

সেন্ট পল’স ক্যাথিড্রাল: সেন্ট পল’স ক্যাথিড্রালের বিশেষত্ব হল গথিক স্টাইলের আর্কিটেকচার। “ব্রিটিশরা যেসব দেশে রাজত্ব করত সেই সব দেশের মধ্যে এখানেই সবার প্রথমে ক্যাথিড্রাল বানানো হয়েছিল” এবং 1847 সালে বানানোর কাজ শেষ হয়। গির্জায় সুন্দর নকশা করা সেন্ট্রাল হল রয়েছে, সাথে রয়েছে কারুকার্য করা কাঠের বেঞ্চ ও চেয়ার, রঙীন কাঁচের জানালা ও সূক্ষ্ম কারুকার্য।
নিকটবর্তী মেট্রো স্টেশন: ময়দান (1 কিমি দূরে)

Victoria Memorial

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল: ভারতের তখনকার ভাইসরয় লর্ড কার্জন 1901 সালে রানি ভিক্টোরিয়ার মৃত্যুর স্মরণে এই স্মৃতিশৌধ বানানোর কাজ শুরু করান। সুন্দর বাগান, বাগিচা, লেক ও নাইকের (বিজয়ের গ্রিক দেবী) মূর্তি দিয়ে সাজানো এই মেমোরিয়াল কলকাতার অন্যতম আকর্ষণ। এই স্মৃতিশৌধের ভিতরের মিউজিয়ামে রয়েছে ঐতিহাসিক স্থাপত্য, পেন্টিং, বই ও অস্ত্র।
বাগানের জন্য টিকিটের দাম – 10 টাকা; মিউজিয়ামের জন্য টিকিটের দাম – 20 টাকা।
প্রতি সোমবার এবং সরকারি ছুটির দিনে মিউজিয়াম বন্ধ থাকে।
ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল সকাল 10টা থেকে বিকাল 5টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
নিকটবর্তী মেট্রো স্টেশন: রবীন্দ্র সদন (1 কিমি দূরে)

National Library of India

ন্যাশনাল লাইব্রেরি অফ ইন্ডিয়া: ভারতের সবথেকে বড় লাইব্রেরি। এখানে 2.2 মিলিয়ন বই আছে। স্বাধীনতার আগে এটি ছিল লেফটেনান্ট গভর্নর অফ বেঙ্গলের বাসস্থান। এই লাইব্রেরিতে ভিক্টোরিয়ার সময়কার প্রচুর আসল প্রকাশনা আছে এবং ভারতের সকল মাতৃ ভাষায় বই আছে। সুন্দর বাগান আর হাঁটার চওড়া রাস্তা দিয়ে সাজানো এই লাইব্রেরিতে অনেক বই পড়তে ও দেখতে আসেন।
লাইব্রেরি সপ্তাহের মাঝের দিনগুলিতে সকাল 9টা থেকে সন্ধ্যা 8টা পর্যন্ত এবং শনিবার, রবিবার ও ছুটির দিনে সকাল 9.30টা থেকে সন্ধ্যা 6টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
সপ্তাহান্তের দিনগুলিতে ভিজিটরদের জন্য সকাল 11টা থেকে দুপুর 1টা, এবং দুপুর 3টা থেকে বিকাল 4টা পর্যন্ত পাস দেওয়া হয়।
নিকটবর্তী মেট্রো স্টেশন: রবীন্দ্র সদন (2.4 কিমি দূরে)। স্টেশনের বাইরে থেকে আপনি চাইলে বাসও সহজেই পেয়ে যাবেন।
তাই আসুন ব্রিটিশ কলকাতাকে আরও কাছ থেকে ঘুরে দেখে যান এবং আপনি হতাশ হবেন না।


One thought on “কলকাতায় ব্রিটিশদের রেখে দেওয়া স্মৃতি

Leave a Comment

Required fields are marked *